সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম

ইনস্টিটিউটের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের উপর ভিত্তি করে গবেষণা ও উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে স্বল্প মূল্যের দেশীয় কাঁচামাল ব্যবহার করে অধিক পুষ্টি সমৃদ্ধ নতুন নতুন পণ্যের উৎপাদনের পদ্ধতি উদ্ভাবন করা হয়। এছাড়াও সম্প্রতি এ ইনস্টিটিউটে মানবদেহের জন্য ক্ষতিকারক ফরমালিনের বিকল্প হিসাবে ন্যাচারাল প্রিজারভেটিভ এর উদ্ভাবনের কাজ সন্তোষজনক ভাবে এগিয়ে চলছে। পাশাপাশি নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে ইন-হাউস ভেলিডেশন ম্যাথোড-এর মাধ্যমে ভেজাল রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে।
সেবাসমূহ
জতীয় স্বার্থে তথা জনকল্যাণে গবেষণা ও উন্নয়ন প্রকল্পের পাশাপাশি নি¤œবর্ণিত কার্যক্রম পরিচালিত হয়ঃ
* খাদ্য-শিল্প সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানসমূহকে প্রযুক্তিগত পরামর্শ ও দিকনির্দেশনামূলক সেবা প্রদান।
* স্পন্সর্ড প্রজেক্ট এর মাধ্যমে প্রযুক্তি উদ্ভাবন ও হস্তান্তর।
* সেমিনার, ওয়ার্কশপ ও সিম্পোজিয়াম আয়োজন।
* কারিগরি প্রশিক্ষণ আয়োজন।
* বিশ্ববিদ্যালয়ের এমএস, এমফিল ও পিএইচডি শিক্ষার্থিদের গবেষণা কাজ তত্ত্ববধান।
* জাতীয় দূর্যোগে জরুরী মানবিক সহায়তা প্রদান।
* বিশ্লেষণ সেবা প্রদানঃ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যেমন- মৎস্য অধিদপ্তর, বিএসটিআই, বাংলাদেশ কাস্টমস, ডব্লিউ এফ পি, বিভিন্ন সুপার সপ, খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান আইএফএসটি হতে বিশ্লেষণ সেবা গ্রহণ করে থাকে।
* বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউ এফ পি) এর স্কুল ফিডিং কর্মসূচীতে সরবরাহের জন্য উৎপাদিত বি¯ু‹ট এর মান নিয়ন্ত্রনে সহযোগিতা প্রদান।
* দেশব্যাপী পরিচালিত লাগসই প্রযুক্তি সরবরাহ কর্মসূচীতে সক্রিয় অংশ গ্রহন করে সেবা প্রদান করা হচেছ।
* চিংড়ি মাছ ও অন্যান্য মাছ রপ্তানিতে সহযোগিতার জন্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এর গাইট লাইন অনুয়াযী মেথড ভেলিডেশন করে বিশ্লেষণ সেবা প্রদান করা হচ্ছে
* স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় এর স্থানীয় সরকার বিভাগ এর পৌরসভা স্যানিটারী ইন্সপেক্টারদের নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে খাদ্যে ভেজাল সনাক্তকরণের উপর প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।
* ঝগঊ ফাউন্ডেশন ও বিসিএসআইআর-এর যৌথ উদ্দোগে নারী শিল্পোদ্যোক্তাদের মধ্যে আইএফএসটি এর উদ্ভাবিত পদ্ধতি এর প্রযুক্তি হস্তান্তর বিষয়ক কর্মশালা আয়োজন করা হয়।
* খাদ্যে ক্ষতিকর এন্টিবায়োটিক ও অনুজীবের উপস্থিতি নির্ণয় করার লক্ষ্যে ঋড়ড়ফ ধহফ অমৎরপঁষঃঁৎব ঙৎমধহরুধঃরড়হ(ঋঅঙ) এর সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয় এবং সে অনুযায়ী সারা দেশ ব্যাপী ঝধসঢ়ষব পড়ষষবপঃরড়হ পূর্বক গবেষণা কার্যক্রম চলছে।
আইএফএসটি এর স্টেক হোল্ডারদের মধ্যে আইএফএসটি এর কর্মকান্ড, উদ্ভাবিত পণ্য ও সেবা সমূহের বিষয়ে নিয়মিত কর্মশালা আয়োজন করা হয়।
* বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এর কর্মকর্তাদের খাদ্যের মান পর্যবেক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।
* খাদ্য লবনের মান নিয়ন্ত্রেণের লক্ষ্যে ইউঝ অনুযায়ী লবনের রাসায়নিক বিশ্লেষণ বিষয়ে ঈড়হঃৎড়ষ ড়ভ ওড়ফরহব উবভরপরবহপু উরংড়ৎফবৎ (ঈওউউ) চৎড়লবপঃ ঝঃঁভভ এবং বিসিক এর ইন্সপেক্টর ও কেমিষ্টদের ব্যবহারিক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।
* খাদ্যে ভেজাল রোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে জাতীয় পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয়
গুরুত্বপূর্ন উদ্বাবন সমূহ
গবেষণা ও উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরণের খাদ্য-পণ্য উৎপাদনের প্রযুক্তি উদ্ভাবন/ পেটেন্টস্বত্ত্ব অর্জন করা হয়েছে। উল্লেখ্যযোগ্য উদ্ভাবনগুলো নি¤œরুপঃ
* মাছ ও দুধে ব্যবহৃত ফরমালিন সনাক্তকরণ কিট
* লবণে ব্যবহৃত আয়োডিন সনাক্তকরণ কিট
* ফল-মূল ও শাক-সবজীর গায়ে লেগে থাকা পেস্টিসাইড রেসিডিউ, ফরমালিন, ওয়াক্স এবং বিভিন্ন ধরণের ব্যাক্টেরিয়া মুক্ত করণের নিমিত্ত “ফ্রুট এন্ড ভেজিট্যাবল ওয়াস”
* বিভিন্ন ধরণের পুষ্টি সমৃদ্ধ সম্পূরক খাদ্য (যেমন, ক্যারোটিন সমৃদ্ধ নুডুলস, সস, ম্যাঙ্গোবার, পাউরুটি, সুপ ইত্যাদি)
* ভিটামিন-এ সমৃদ্ধ বিস্কুট
* আয়রন ও ভিটামিন সমৃদ্ধ খাদ্য শস্য পণ্য সমূহ (যেমন, রাইস পরিস, বিকল্প সেরিলাক)
* প্রোটিন ও আঁশ সমৃদ্ধ ডায়াবেটিক আটা
* বিভিন্ন দেশীয় মৌসুমী ফলমূল ও শাক সবজি হতে বিভিন্ন ধরণের জুস, (স্ট্রবেরী, তেঁতুল, করলা, চালতা ইত্যাদি), সস (বাঁধা কপি, চালতা, স্ট্রবেরী, মিক্সসড ভেজিট্যাবল সস ইত্যাদি) জ্যাম, জেলী (আনারস, স্ট্রবেরী, পেয়ারা ইত্যাদি)
* বিভিন্ন ধরণের ডি-হাইড্রেটেড পণ্য (গাজর, করলা, টমেটো ইত্যাদি)
এছাড়াও নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে ইন-হাউস ভেলিডেট ম্যাথোডের মাধ্যমে এবং অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে খাদ্যে নানাবিদ ভেজাল সামগ্রী/কেমিক্যালস সনাক্তকরণ ও পরিমাণ নির্ণয় করা হয়, যেমন-
* ফলে ভেজাল হিসেবে ব্যবহৃত ফরমালিন, ক্যালসিয়াম কার্বাইড, ইথিফোন ইত্যাদি নির্ণয়
* চিংড়ি মাছে ব্যবহৃত বিভিন্ন ধরণের ড্রাগ রেসিডিউ-এর উপস্থিতি ও পরিমাণ নির্ণয়
* বিভিন্ন খাদ্যে পেস্টিসাইড রেসিডিউ ও ভারী ধাতু নির্ণয়
* ফিস ফিড, সিরিয়াল ও ভেজিটেবলে প্যাটুলিন, অকরাটক্সিন ও আফলাটক্সিন-এর উপস্থিতি ও পরিমাণ নির্ণয়
* গুড়াদুধে ম্যালামিন ও আফলাটক্সিন এম-১ এর উপস্থিতি নির্ণয়
* মাস্টার্ড অয়েল-এ ‘ইরুসিক এসিড‘-এর পরিমাণ নির্ণয়
* হালাল খাদ্য নিশ্চয়তার লক্ষ্যে খাদ্য-শিল্পে ব্যবহৃত ফ্যাট/অয়েল-এর পিগ/লার্ড ফ্যাট-এর উপস্থিতি নির্ণয়
* খাদ্য-শিল্পে ব্যবহৃত প্যাকেজিং ম্যাটেরিয়ালের ফুড গ্রেড নিশ্চিতকরণ
* মুড়িতে ব্যবহৃত ইউরিয়া, চিনি ও গুড়ে ব্যবহৃত হাইড্রোজ-এর উপস্থিতি নির্ণয়
* বিভিন্ন ধরণের খাদ্য-পণ্যে ব্যবহৃত মাত্রা অতিরিক্ত প্রিজার্ভেটিভের পরিমাণ নির্ণয়
* বিভিন্ন ধরণের ড্রিংসে ব্যবহৃত অ্যালকোহল ও ক্যাফেইনের পরিমাণ নির্ণয়